ওপেন নিউজ
  • | |
  • cnbangladesh.com
    opennews.com.bd
    opennews.com.bd
    opennews.com.bd
    opennews.com.bd
opennews.com.bd

পরিবেশ

ঈদ আনন্দ থেকে বঞ্চিত প্লাবিত এলাকার মানুষ


Date : 06-24-17
Time : 1498338775

opennews.com.bd

ওপেননিউজ  # ভোলার দ্বীপ উপজেলা মনপুরার মূল ভূ-খন্ডের ১নং মনপুরা ইউনিয়নের চৌমুহনী বাজার সংলগ্ন পশ্চিম পাশের ভাঙা বেড়িবাঁধ ও হাজিরহাট ইউনিয়নের পূর্ব সোনার চরের ভাঙা বেড়িবাঁধ দিয়ে অমাবশ্যার জোতে আবারও পানি ঢুকে ওই এলাকার ৩০ সহস্রাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়ছেন। গত বৃহস্পতিবার থেকে পুনরায় জোয়ারের পানি বৃদ্ধি পেয়ে মনপুরা ইউনিয়নের কুলাগাজী তালুক, কাউয়ারটেক চৌমুহনী, কলাতলীচর, হাজিরহাট ইউনিয়নের সোনারচর, চরযতিন, চরজ্ঞান, দাসের হাট ও উত্তর সাকুচিয়া ইউনিয়নের চরনিজামসহ ৮টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। গত তিনদিনে এসব প্লাবিত এলাকায় জোয়ারের পানি উঠা-নামা করে। এছাড়াও মূল ভূ-খন্ড থেকে বিচ্ছিন্ন কলাতলীচর, ঢালচর, চরনিজামের চারপাশে কোনো বেড়িবাঁধ না থাকায় অমাবশ্যার জোয়ারে অস্বাভাবিক জোয়ারের পানি বৃদ্ধিতে এসব চরাঞ্চলগুলোতেও প্রতিদিন জোয়ারের পানি ওঠা-নামা করে। এসব প্লাবিত এলাকার মানুষের বিশুদ্ধ পানি ও খাবার সংকট দেখা দিয়েছে।  পানিবন্দি সাধারণ মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়েছেন। পানিবন্দি মানুষের দুর্ভোগের কথা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করা হয়েছে। সরজমিনে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মিসেস শেলিনা আকতার চৌধুরী পরিদর্শন করেন। প্রতিদিন ভাঙা বেড়িবাঁধ দিয়ে জোয়ারের পানি উঠা-নামার কারণে মানুষের বসতভিটা প্রায় ডুবে থাকে। রান্না-বান্না করতে পারছে না এসব পানিবন্দি এলাকার মানুষ। ফলে ঈদ আনন্দ ম্লান হতে চলেছে এসব প্লাবিত এলাকার মানুষের।
সরজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, এসব প্লাবিত এলাকার মানুষের বসতভিটা পানির নিচে ডুবে যাচ্ছে। পাকা রাস্তার উপর দিয়ে পানি গড়িয়ে পড়ে গ্রামের পর গ্রাম ডুবে যাচ্ছে। উঠানে ময়লা-আবর্জনা পানি জমে রয়েছে। মসজিদে মুসল্লীরা নামাজ পড়তে পারছে না। দূর থেকে মহিলারা খাবার পানি সংগ্রহের জন্য রাস্তার পাশে থাকা টিউবওয়েল থেকে জোয়ারের মধ্যে পানি সংগ্রহ করছেন। বসতভিটার উঠান ডুবে থাকার কারণে মানুষের চলাচল করতে খুব কষ্ট হচ্ছে। বসতঘর ডুবে থাকার কারণে রান্না-বান্না করতে পারছে না। সামনে রোজার ঈদ আনন্দ এখন ম্লান হতে চলেছে। প্রতিদিন ভাঙা বেড়িবাঁধ দিয়ে জোয়ারের পানি ঢুকে উঠা-নামা করছে। ঘর থেকে কোথাও বের হতে পারছেন না সাধারণ মানুষ। চারিদিকে  জোয়ারের পানি থৈ থৈ করছে। সাধারণ মানুষ খুব আতঙ্কে আছেন। গবাদি পশুগুলোকে রাস্তার ওপর ও উঠানের উঁচু জায়গায় দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গেছে।
দক্ষিণ চরযতিন জামে মসজিদের মোয়াজ্জিন মো. মিজানুর রহমান বলেন, জোয়ারে প্রতিদিন আমাদের মসজিদ ডুবে যায়। আমরা খুব কষ্ট করে নামাজ পড়ছি। সাধারণ মানুষের অভিযোগ পানি উন্নয়ন বোর্ডের অবহেলায় এসব ভাঙা বেড়িবাঁধ নির্মাণ না করায় সাধারণ মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়ছেন।
এ ব্যাপারে পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলী আবুল কালাম বলেন, ভাঙা বেড়িবাঁধ দিয়ে ভেতরে পানি প্রবেশ করে মানুষ পানিবন্দী রয়েছেন। আমরা দ্রুত ভাঙা বেড়িবাঁধ নির্মাণের কাজ শুরু করে দিয়েছি।  আশা করছি তা দ্রুত সম্পন্ন করা হবে। আমরা এবিষয়গুলো ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে  অবহিত করেছি।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সোহাগ হাওলাদার বলেন, ভাঙা বেড়িবাঁধ দিয়ে পানি ঢুকে পানিবন্দী হয়ে পড়ছেন সাধারণ মানুষ। আমরা পানিবন্দী মানুষের দুর্ভোগের কথা চিন্তা করে ভেকু মেশিন দিয়ে কাজ শুরু করেছি। আশা করছি দ্রুত কাজ সম্পন্ন হবে।
উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মিসেস শেলিনা আকতার চৌধুরী বলেন,  পরিবেশ ও বন উপমন্ত্রী আবদুল্যাহ আল ইসলাম জ্যাকব এমপির প্রচেষ্টায় ভাঙা বেড়িবাঁধগুলো সংস্কারের জন্য রিং বেড়িবাঁধের টেন্ডার কাজ শুরু হয়েছে।




পরিবেশ



























সম্পাদক মণ্ডলীর সভাপতিঃ এনামুল হক শাহিন
প্রধান সম্পাদকঃ সিমা ঘোষ
সম্পাদকঃ নরেশ চন্দ্র ঘোষ

ঠিকানাঃ
২৩/৩ (৪ তালা), তোপখানা রোড, ঢাকা-১০০০
ফোনঃ ০২৯৫৬৭২৪৫, ০১৯৭৭৭৬৮৮১১
বার্তা কক্ষঃ ফাক্সঃ ০২৯৫৬৭২৪৫, ০১৬৭৬২০১০৩০
অফিসঃ ০১৭৯৮৭৫৩৭৪৪,
Email: editoropennews@gmail.com



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকঃ নুরে খোদা মঞ্জু
ব্যাবস্থাপনা সম্পাদকঃ গাউসুল আজম বিপু
বার্তা সম্পাদকঃ জসীম মেহেদী
আইটি সম্পাদকঃ সাইয়িদুজ্জামান